1. newsshariful@gmail.com : Md shariful islam : Md shariful islam
  2. torikhossainbappy@gmail.com : Torik Hossain Bappy : Torik Hossain Bappy
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৭:০০ পূর্বাহ্ন

সিদ্ধিরগঞ্জে যুবলীগ অফিসে টেনশন গ্রুপের হামলা, নারী নেত্রীকে শ্লীলতাহানী

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময়ঃ রবিবার, ২৩ জুন, ২০২৪
  • ২৪ জন্য পাঠক দেখেছে।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিক ২ নং ওয়ার্ডে যুবলীগের অফিসে রবিবার (২৩ জুন) সন্ধ্যায় হামলা চালিয়েছে দুর্ধর্ষ কিশোরগ্যাং টেনশন গ্রুপের লিডার রাইসুল ইসলাম সীমান্ত ও তার সহযোগীরা।  এ সময় তারা অফিস ভাংচুর করে যুবলীগ নেতা ইয়াসিন আরাফাত রাসেলকে মারধর করে।

 

এছাড়াও এ সময় সেখানে থাকা মহিলা নেত্রী ফাতেমাকে মারধর করে শ্লীলতাহানী করে। পরে লোকজন এগিয়ে আসলে এ ঘটনায় কোনো আইনগত ব্যবস্থা না নেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে চলে যায়।

 

আহত রাসেল বলেন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা পরিচয়দানকারী শফিকুল ইসলাম শফির ছেলে টেনশন গ্রুপের লিডার রাইসুল ইসলাম সীমান্ত, মিজমিজি এলকারা টুলু ছেলে মইন, কাশেমের ছেলে মুন্না, মজিবুরের ছেলে আলামিন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আকষ্মিক এ হামলা চালায় অফিস ভাংচুর করে। এ সময় আমাদের মারধর করে টেবিলের ড্রয়ার থেকে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল নিয়ে যায়।

 

নারী নেত্রী ফাতেমা জানান তাকে মারধর করে পরনের কাপড় ছিড়ে ফেলে ও শ্লীলতাহানী করে কিশোরগ্যাং টেনশন গ্রুপের লিডার সীমান্ত। এ ঘটনায় তিনি আ্ইনগত ব্যবস্থা নিতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় রয়েছেন।

 

এলাকাবাসী জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজিতে আলোচিত তিনটি কিশোরগ্যাং গ্রুপ রয়েছে। গ্রুপ তিনটি হলো-টেনশন গ্রুপ, ডেবিল এক্সো গ্রুপ ও মাফিয়া গ্রুপ। এরমধ্যে আলোচিত হচ্ছে টেনশন গ্রুপ। এই গ্রুপের লিডার হচ্ছে উঠতি বয়সী দুর্র্ধষ সন্ত্রাসী রাইসুল ইসলাম সীমান্ত। এছাড়া ডেভিল এক্সো গ্রুপের লিডার সাকিবুল ইসলাম সারিব ও মাফিয়া গ্রুপের লিডার তাহসিন ইসলাম সিমন। মজার বিষয় হলো এই তিন কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী গ্রুপের লিডাররা মিজমিজি পশ্চিমপাড়া এলাকার শফিকুল ইসলামের তিন ছেলে। শফিকুল ইসলাম সাবেক ছাত্রলীগ নেতা। বতর্মানে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে বেড়ান। যদিও তার কোন পদ-পদবী নেই স্বেচ্ছাসেবকলীগে। এলাকায় আধিপত্য ও নিজের অবস্থান মজবুত রাখতে তিন ছেলেদেরকে দিয়ে তিনটি কিশোর গ্যাং বাহিনী গড়ে তুলেছেন। কখনো কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীরা আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হলে অর্থের যোগান দিয়ে শফিকুল ইসলাম তাদের জামিনে বের করে আনেন এবং ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ নেতাদের পাশে দাড়িয়ে ছবি তুলে শফিকুল ইসলাম এলাকায় নিজেকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করেন। কিন্তু শফিকুল ইসলাম ও তার ছেলেদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে বিরক্ত সিদ্ধিরগঞ্জ আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। তারা বলেন, কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীদের তৎপরতায় এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ। ইভটিজিং, চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, অপহরণ, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, মাদক বিক্রি ও মাদক সেবনসহ এমন কোন অপকর্ম নাই যা এই এই কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীরা করে না। এছাড়া তাদের বখাটেপনার কারণে এলাকার স্কুল-কলেজগামী মেয়েরা নিরাপদে রাস্তায় চলাচল করতে ভয় পায়। কিশোরগ্যাং সন্ত্রাসীরা প্রায় সময় হোন্ডা মহড়া দেয় এলাকার পাড়া মহল্লায়।

 

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, এ ঘটনায় ফাতেমা নামে এক নারী নেত্রীর অভিযোগ দায়ের প্রক্রিয়াধীণ রয়েছে। অভিযোগের পরই বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো অপরাধিকে ছাড় দেয়া হবে না।

অনুগ্রহ করে আপনাদের ব্যক্তিগত সোশ্যাল মিডিয়া গুলিতে প্রকাশিত এই প্রতিবেদন টি শেয়ার করে আমাদের সাথেই থাকুন ধন্যবাদ।

এ জাতীয় আরও সংবাদ ক্যাটাগরি
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৪
  • ১২:০৭
  • ৪:৪৩
  • ৬:৫৩
  • ৮:১৮
  • ৫:১৮