রেজাউল হত্যার রহস্য উদঘাটন, হত্যাকারী হৃদয় গ্রেফতার

লেখক: শামীম আখতার, খুলনা 
প্রকাশ: ২ years ago

যশোর পদ্মবিলা পুকুর থেকে উদ্ধারকৃত মৃত রেজাউল করিম (৩৮) হত্যার রহস্য উদঘাটন করে হত্যাকারী হৃদয়কে (২৪) গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ এবং নিহতের ট্রাক ও মোবাইল জব্দ করেছে। হত্যাকারী হৃদয় মানিকগঞ্জের সদর থানার পশ্চিম নথুরা গ্রামের জসিম এর ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ২১ জুন সকাল অনুমান ৭:০০ ঘটিকার সময় যশোর কোতয়ালী থানার বসুন্দিয়া ইউনিয়নের পদ্মবিলা সাকিনস্থ ঘুনি নাথপাড়া যশোর টু খুলনা মহাসড়কের পাশে জনৈক রশিদুলের পুকুর থেকে অজ্ঞাত এক পুরুষের মরদেহ উদ্ধার করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ। পরবর্তীতে যশোরের পিবিআই পুলিশ প্রযুক্তির মাধ্যমে মৃত ব্যক্তিতে সনাক্ত করতে সক্ষম হন। সে বরিশাল জেলার গৌরনদী থানার টরকীর চর গ্রামের মৃত ইউনুস বয়াতির ছেলে রেজাউল করিম (৩৮)। সংবাদ পেয়ে পরেরদিন ২২ জুন রেজাউলের স্ত্রী হাসিনা বেগম এসে নিহতের সঙ্গীয় হেলপার হৃদয়সহ অজ্ঞাত লোকের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় এজাহার দায়ের করেন। থানার মামলা নং-৮৫।

ঘটনাটি স্পর্শকাতর ও চাঞ্চল্যকর হওয়ায় জেলার পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম কোতয়ালী থানা ও ডিবি পুলিশকে ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারের লক্ষে কঠোর নির্দেশ প্রদান করেন এবং মামলাটি ডিবিকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি রুপন কুমার সরকার, পিপিএম এর তত্ত্বাবধানে এসআই মফিজুল ইসলাম, পিপিএম সঙ্গীয় এসআই জাকির হোসেন, এসআই আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ফোর্সসহ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ২৪ জুন বেলা ১৩:০০ ঘটিকার সময় কুমিল্লা জেলার চান্দিনা থানার কাঠেরপুল এলাকায় সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিম রেজাউলকে হত্যা পরবর্তী তার হেফাজত থেকে চুরি করা ট্রাক, মোবাইল ফোনসহ হেলপার হৃদয় (২৪) কে হাতে নাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।
সে সময় দেখা যায়, হত্যা পরবর্তী রেজাউল এর নিকট থেকে চুরি করা ট্রাকটির রেজিঃ নম্বর হাতে লেখা রং দিয়ে নাম্বার পরিবর্তন করা।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, রেজাউলের নিকট হৃদয়ের পাওনা টাকা চেয়ে না পেয়ে ক্ষোভে হত্যার পরিকল্পনা করে সাতক্ষীরা ভোমরা থেকে বসুন্দিয়া আসার পথে ২১জুন রাত অনুমান ০২:০০ ঘটিকার সময় যশোর টু বসুন্দিয়া রোডে মোড়লী রেল ক্রসিং পার হওয়ার পর যেকোন স্থানে ড্রাইভার রেজাউল বিশ্রাম করার সময় ঘুমিয়ে পড়লে ঘুমন্ত অবস্থায় গলায় রশি দিয়ে পেচিয়ে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে দিয়ে ট্রাক ও মোবাইল ফোন চুরি করে নিয়ে যায় হৃদয়। চুরি করা ট্রাক নিয়ে কুষ্টিয়া খোকসা থেকে পেঁয়াজের ক্ষ্যাপ নিয়ে কুমিল্লার চান্দিনা কাঠেরপুল পেয়াজের আড়তে নিয়ে যায়। সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

যশোর জেলা পুলিশ শুক্রবার বিকেলে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

  • রেজাউল হত্যার রহস্য উদঘাটন
  • হত্যাকারী হৃদয় গ্রেফতার